আমার নিখুঁত চৌর্যবৃত্তি – মারুফ আহমেদ নয়ন

আমার নিখুঁত চৌর্যবৃত্তি – মারুফ আহমেদ নয়ন

তোমাকে এমন কাঙ্গালের মতো ভালবাসবো, কুলিয়ে উঠতে পারবে না। সঞ্চয় করবে যা কিছু, লুট হয়ে যাবে। জানো তো, কবিদের আছে দস্যু স্বভাব। যখন আঁধার হবে, ঢেকে যাবে চাঁদ, ঢুকে পড়বো তোমার হেরেমের ভেতরে। 
 
প্রহরীরা গভীর ঘুমে আছন্ন থাকবে। আমার নিখুঁত চৌর্যবৃত্তি তোমাকে মুগ্ধ করবে। বাহিরে শীতবৃষ্টিতে কাঁপতে থাকবে আমার কালো ঘোড়াগুলো, আমি পালিয়ে যাবার প্রস্তুতি নেবো, তারপর তোমার মুখশ্রীর দিকে তাকিয়ে অন্ধ হয়ে যাবো।
 
তারপর অগ্নি যুগ। শুনেছি, এক রাজকন্যাকে দেখে পরীদের হয়েছিলো ভ্রম। দূরে আল্পসের মঁ ব্লঁ পর্বত শিখর জুড়ে গলছে বরফ। প্রতিটি ফুলের শরীরে জমছে বিষাক্ত মধু, যে পুরুষ মৌমাছিগুলো দীর্ঘ সময় পরে রাণী মৌমাছির সাথে মিলিত হবার আশা নিয়ে শূন্যে ভেসে বেড়াচ্ছে। দেখো, মাটিতে পড়ে আছে তাদের অর্ধেক দেহবশেষ।

Leave a Reply